চট্টগ্রাম, , বুধবার, ২০ জানুয়ারী ২০২১

পঞ্চগড়ে রিটার্নিং অফিসারের গাড়ি ভাঙচুর

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক  ২০২০-১২-২৮ ১৪:৫৫:৪৬   বিভাগ:

 

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক :: পঞ্চগড়ে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় এক পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

এ ছাড়া ভোটকেন্দ্রের সামনে পঞ্চগড় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসার মো. আলমগীরের গাড়িতে ভাঙচুর করেছে দুর্বৃত্তরা।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে পৌরসভা এলাকার ২নং ওয়ার্ডের কালেক্টরেট আদর্শ শিক্ষা নিকেতন ভোটকেন্দ্রের সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ, বিজিবি ও র্যা।ব সদস্যরা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

এর আগে সকাল ৯টার দিকে শহরের পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কেন্দ্রের বাইরে বিএনপি ও আওয়ামী লীগ প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ, বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যরা পরিস্থিতি শান্ত করেন।

এ ছাড়া নতুন বস্তি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্র, নুরুন আলা নুর কামিল মাদ্রাসাকেন্দ্র এবং পঞ্চগড় উচ্চ বিদ্যালয়কেন্দ্রে বিক্ষিপ্তভাবে ছোট ছোট পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। তবে বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে।

পঞ্চগড় জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলমগীর বলেন, প্রতিটি কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণ চলছিল। বাইরে কিছুটা উত্তেজনা থাকলেও তা শান্ত করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বেলা ১১টার দিকে একদল দুর্বৃত্ত তার গাড়িতে হামলা চালিয়ে পেছনের কাচ ভেঙে দিয়েছে। এ সময় তার সঙ্গে থাকা একজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় তিনি জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলে আইনিব্যবস্থা নেবেন বলে জানান।

পঞ্চগড় সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়কেন্দ্রের সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মঞ্জুর মোর্শেদ বলেন, প্রথমবার ইভিএমে ভোট হওয়ার কারণে ভোটারদের বুঝিয়ে দিতে হচ্ছে। অনেকেই ভুল করার কারণে তাদের বারবার শেখাতে হচ্ছে।

পঞ্চগড় পৌরসভার ১৫ কেন্দ্রে সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। শীত উপেক্ষা করে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোট দিতে সকাল থেকেই ভোটারদের ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে।

পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের ১৫ কেন্দ্রের মোট ভোটার সংখ্যা ৩৫ হাজার ১১ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ১৭ হাজার ১৫৩ এবং নারী ভোটার ১৭ হাজার ৮৫৮ জন।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ তিনজন মেয়রপ্রার্থী এবং ৫৩ জন কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।



ফেইসবুকে আমরা