চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০

এরদোগানের ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করবে শার্লি এবদো, এরদোগান-ম্যাক্রনের সম্পর্কে অবনতি

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক  ২০২০-১০-২৮ ১৫:৫১:১৪   বিভাগ:

 

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক ::  মহানবী হযরত মোহাম্মদ (স.)-এর ব্যঙ্গচিত্র ও ইসলামকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করার কারণে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের সঙ্গে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোগানের সম্পর্কে মারাত্মক অবনতি হয়েছে। তুর্কি পার্লামেন্ট ম্যাক্রনের এমন আচরণের নিন্দা জানিয়েছে। অন্যদিকে তুরস্কের কর্মকান্ডে ব্যবস্থা নিতে ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ইমানুয়েল ম্যাক্রন। এ ছাড়াও মহানবী (স.)কে নিয়ে ব্যঙ্গ প্রকাশকারী ফরাসি সেই বহুল বিতর্কিত ম্যাগাজিন শার্লি এবদো তাদের পরবর্তী সংখ্যায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করবে। এক টুইটে তারা এ কথা জানিয়েছে। এর ফলে এরদোগান ও পশ্চিমা শক্তিগুলোর মধ্যে বাক স্বাধীনতা নিয়ে লড়াই আরো জোরালো হবে বলে মনে করা হচ্ছে। টুইটে এরই মধ্যে এরদোগানের কার্টুন দেখানো হয়েছে। তাতে এরদোগানকে দেখা যায় একটি চেয়ারে বসে আছেন এবং তার সামনে পিছন দিয়ে দাঁড়ানো একজন নারী।
তিনি তার পোশাক উপরে তুলছেন। এর ক্যাপশনে বলা হয়েছে, ‘এরদোগান- হি ইজ এ লট অব ফান ইন প্রাইভেট’। শার্লি এবদো ম্যাগাজিনের পরবর্তী সংখ্যা প্রকাশ হওয়ার কথা বুধবার। মহানবী (স.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করার পর মুসলিম দেশগুলোর সঙ্গে শার্লি এবদোর যে বিরোধপূর্ণ অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে তার রোষানলের সামনে রয়েছেন এরদোগান। ওদিকে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রনের মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে প্রশ্ন তোলা ও ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেয়ায় তুরস্কের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের নেতাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ফ্রান্স। ফ্রান্সের বাণিজ্যমন্ত্রী ফ্রাঙ্ক রেইস্টার বিস্তারিত না জানিয়ে আইনপ্রণেতাদের বলেছেন- ফ্রান্স একতাবদ্ধ আছে। ইউরোপও একতাবদ্ধ আছে। ইউরোপীয়ান কাউন্সিলের পরবর্তী সামিটে তুরস্ক ও ইউরোপের মধ্যে ক্ষমতার ভারসাম্যকে আরো শক্তিশালী করতে সিদ্ধান্ত নিতে বলা হবে ইউরোপকে।
ওদিকে তুরস্কের পার্লামেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রনের মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে। ক্ষমতাসীন একে পার্টি, তাদের মিত্র ন্যাশনালিস্ট মুভমেন্ট (এমএইচপি), ধর্মনিরপেক্ষ প্রধান বিরোধী দল রিপাবলিকান পিপলস পার্টি (সিএইচপি) এবং আইভি পার্টি যৌথ ঘোষণা দিয়েছে এ বিষয়ে। তাতে বলা হয়েছে, ইমানুয়েল ম্যাক্রনের মন্তব্য বিভিন্ন ধর্মবিশ্বাসের মানুষদের মধ্যে ধ্বংসাত্মক এক সংঘাত সৃষ্টি করেছে। ম্যাক্রনের উদ্দেশে বলা হয়, মত প্রকাশের স্বাধীনতাকে সমর্থন দেয়ার মাধ্যমে বেপরোয়া হয়ে সংঘাতকে উস্কে দিচ্ছেন ম্যাক্রন। এর ফলে বিভিন্ন ধর্মবিশ্বাসের মানুষের মধ্যে গভীর ও নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে।
তবে এসব ঘটনায় তুরস্কের সামনে বড় একটি সম্ভাবনা নস্যাৎ হয়ে যেতে পারে। তুরস্ক দীর্ঘদিন ধরে ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের একটি সদস্য হওয়ার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এ প্রক্রিয়াটি এখন অচল অবস্থায় আছে। ফলে উদ্ভূত পরিস্থিতি তুরস্ককে আরো পিছনে নিয়ে যেতে পারে। এর এক মুখপাত্র বলেছেন, ইউরোপীয়ান ইউনিয়নের সদস্য হওয়ার ক্ষেত্রে যেসব বাধ্যবাধকতা আছে, একটি দেশের পণ্য বর্জনের ডাক দেয়া তার বিপরীত। ফলে তুরস্ক আরো পিছিয়ে যাবে।
ওদিকে অপমানজনক বক্তব্য টুইট করার কারণে ডাচ উগ্র ডানপন্থি রাজনীতিক গির্ট উইল্ডার্সের বিরুদ্ধে ফৌজদারি অভিযোগ এনেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্টে এরদোগান। রোববার তিনি নিজের জাস্টিস এন্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টির (একে) এক বৈঠকে বলেছেন, আমাদের পুস্তকে ফ্যাসিজম নেই। এটা তাদের কাছে আছে। আমাদের আছে সামাজিক ন্যায়বিচার। এর মধ্য দিয়ে তিনি উইল্ডারকে ‘ফ্যাসিস্ট’ বলে আখ্যায়িত করেন। উল্লেখ্য, এর আগে ডাচ পার্টি ফর ফ্রিডম-এর নেতা উইল্ডার টুইটারে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের একটি অবমাননাকর কার্টুন প্রকাশ করেন। এমন কার্টুনের কড়া সমালোচনা করেছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলুসহ নেতাকর্মীরা।



ফেইসবুকে আমরা