চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১

দেশে কি যুদ্ধ শুরু হয়েছে, এভাবে বন্দুকযুদ্ধে মানুষ মারা হচ্ছে : এরশাদ

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক  ২০১৮-০৫-২৬ ২২:৪১:৫৬   বিভাগ:

 

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশে কি যুদ্ধ শুরু হয়েছে, এভাবে বন্দুকযুদ্ধে মান্ষু হত্যা করা হচ্ছে। যাদেরকে হত্যা করা হচ্ছে তারা কি এদেশে জন্ম নেয় নাই? তাদের কি বিচার পাওয়ার অধিকার নেই। শনিবার রাজধানীর বিজয়নগরের একটি হোটেলে জাতীয় ইসলামী মহাজোট আয়োজিত আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, মাদক নিমূর্লের নামে যাদের হত্যা করছেন তারা এদেশের নাগরিক। মানুষ মারার অধিকার আপনাদের কে দিয়েছে। দেশে কি আইন বা আদালত নেই।

ইসলামী মহাজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবু নাসের এয়াহেদ ফারুকের সভাপতিত্বে এসময় আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভ রায়, রেজাউল ইসলাম ভ‚ঁইয়া, জোটনেতা মীর আবু তৈয়ব মো. রেজাউল করিম, মাওলানা আলফাত চৌধুরী, আবুল হাসনাত ও ইসহাক ভ‚ইয়া প্রমুখ।

এরশাদ বলেন, রমজান শান্তি ও সংযমের মাস। কিন্তু আমরা কেউ শান্তি ও শ্বস্তিতে নেই। আমাগীকাল কে বন্দুক যুদ্ধের শিকার হবো আমরা কেউ জানি না। রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রনের কথা বললেও পারেননি।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর প্রসঙ্গে সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভারত থেকে আমাদের জন্য কি এনেছেন? আমরা জানিনা, জানতে চাই। তিস্তার কোনো সমাধান কি করতে পেরেছেন? আশা করি প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে সুস্পষ্ট বক্তব্য রাখবেন।

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, রোহিঙ্গাদের দেখতে অনেকে যাচ্ছে। অনেক প্রতিশ্রæতি দিচ্ছে। কিন্তু তাদের প্রতিশ্রæতির কোনো মুল্য নেই। নোম্যানস্ ল্যান্ড দুর্বিষহ জীবন-যাপন করছে সাড়ে চার লাখ রোহিঙ্গা। তাদের বাংলাদেশে নিয়ে আসুন। দশ লাখ রোহিঙ্গাকে খাওয়াতে পারলে আরও চার লাখ মানুষকেও খাওয়াতে পারবেন।

তিনি বলেন, ইসলামী রাষ্ট্রগুলো আজ বিচ্ছিন্ন। কারো সাথে কারো মিল নেই। ফিলিস্তিনিসহ অনেক মুসলিম রাষ্ট্র আজ নিগৃহীত। তাদের পক্ষে বলার কেউ নাই। মুসলমান রাষ্ট্রগুলো নিরব। ফিলিস্তিনিরা নিজ দেশেই আজ ইসরাইলীদের দ্বারা হত্যার শিকার হচ্ছে, বিশ্ব বিবেক নিরব।

এইচ এম এরশাদ বলেন, আমাদের দেশেও আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ নই। সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে এদেশে কেউ ইসলাম বিনষ্ট করার সাহস পাবেনা। তিনি সকল ইসলামী দলের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, আসুন সকল ইসলামীদল একত্রিত হয়ে নির্বাচন অংশ নেই। যাতে করে আমরা ইসলামের সেবা করতে পারি।



ফেইসবুকে আমরা