চট্টগ্রাম, , বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১

ক্ষমতায় টিকে থাকতে সরকার দেশ বিক্রি করতে পারেন: রিজভী

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক  ২০১৮-০৫-১৯ ০৮:০৯:৪৪   বিভাগ:

 

ক্ষমতায় টিকে থাকতে সরকার দেশ বিক্রি করে দিতে পারেন বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ক্ষমতায় টিকে থাকতে প্রতিরক্ষা চুক্তিসহ নানা গোপন চুক্তির মাধ্যমে সরকার দেশ বিক্রি করে দিতে পারেন। তার কাছে গণতন্ত্রই বা কী আর অবাধ নির্বাচনই বা কী, কোনটিরই কোন দাম নেই। ক্ষমতার আমলকি করতলে ধরে রাখার জন্য তারা এহেন অনাচার নেই যেটি তারা করছেন না। শনিবার দুপুরে নয়াপল্টনস্থ দলটির কেন্দ্রীর কার্যালয়ের এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, এদেশের সর্বত্রই নির্বাচনে ভোটা ডাকাতি, ভোট চুরি, কেন্দ্র দখল করে লাইন ধরে সিল মারা, প্রতিপক্ষের এজেন্টদেরকে কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়া, দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রের ভোট দেয়া, কেন্দ্রের ভিতর ঢুকে সন্ত্রাসীরা লাইন ধরে ভোট দিয়ে ২০-৩০ মিনিটে প্রায় ১২০০ ব্যালটে সীল মেরে বাক্সে ভরা হয়, যে নির্বাচনে ভোটাররা ভোট কেন্দ্রে না গেলেও ৯৯ ভাগ ভোট পড়ে, যে নির্বাচনে মেয়রের ভোটের সঙ্গে কাউন্সিলর ভোটের কোন মিল থাকে না অর্থাৎ ভোটের ব্যালট গরমিল থাকে এবং মরা ব্যক্তির ভোট প্রদান ইত্যাদি নতুন মডেলের নির্বাচন, ‘শেখ হাসিনা মার্কা’ নির্বাচনের দৃষ্টান্ত। খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ভোট কেলেঙ্কারীর আরেকটি নতুন মডেল জনগণ প্রত্যক্ষ করলো। এই নতুন মডেলের ভোট ডাকাতির আবিস্কারক শেখ হাসিনা। সুতরাং ক্ষমতাসীন শেখ হাসিনা ও সুষ্ঠু ভোট পরস্পরের প্রতিপক্ষ। তাই শেখ হাসিনার অধীনে কখনোই কোন নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ ও অংশগ্রহণমূলক হতে পারে না। যিনি রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে চরম শত্রু জ্ঞান করে, তাঁর সরকারের সমালোচনাকারীদেরকে যিনি নিশ্চিহ্ন করতে চান তাঁর কাছে কখনোই গণতন্ত্র ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিরাপদ নয়।

তিনি বলেন,বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার, নির্যাতন, নিপীড়ণসহ হত্যা ও গুমের রক্তাক্ত পথেও তারা সমানভাবে অগ্রগামী। ক্ষমতার সোনার হরিনের পেছনে ছুটতে প্রধানমন্ত্রীর কোন ক্লান্তি নেই। যিনি জনসমর্থন ছাড়া ক্ষমতাকে যক্ষের ধনের মতো আগলে রাখেন তাঁর কাছে গণতন্ত্র, ভোট, নির্বাচন কোন অর্থই বহন করে না। তিনি আবার মাঝে মাঝে দলীয় প্রধানের পদ ছেড়ে দেয়ার কথা বলেন, এটা শুধু হাস্যকরই নয়, এটি বছরের সেরা প্রহসন। আগামী জাতীয় নির্বাচন সব দলের অংশগ্রহনমূলক করতে এবং দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে প্রস্তুতি নিচ্ছে জনগণ। আমি আবারও দ্ব্যর্থহীন কন্ঠে বলতে চাই-দেশী-বিদেশী চক্রান্ত কাজ হবে না। দূর্বার আন্দোলনের মাধ্যমেই দেশে গণতন্ত্র পূনঃপ্রতিষ্ঠা করা হবে। বেগম খালেদা জিয়াকেও মুক্ত করা হবে। বেগম খালেদা জিয়া বিহীন নির্বাচন এদেশে হবে না, হতে দেওয়া হবে না। আর আন্দোলন সম্পর্কে বিশ^নন্দিত নেতা নেলসন ম্যান্ডেলার উদ্ধৃতি দিয়ে বলতে চাই-আন্দোলন সহিংস হবে, নাকি অহিংস হবে তা নির্ভর করে সরকারের নীতির ওপর।



ফেইসবুকে আমরা