চট্টগ্রাম, , মঙ্গলবার, ২০ অক্টোবর ২০২০

নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত ‘ন্যায়সঙ্গত’ হয়নি: অ্যালেন শুভ্র

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক  ২০১৮-০৪-০৭ ১৯:১৮:২৩   বিভাগ:

নাট্য পরিচালক নিয়াজ মাহবুবকে শারীরিকভাবে আঘাত করার অভিযোগ ‘স্বীকার করে নেওয়ায়’ তাকে তিন মাস নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্তকে ‘ন্যায়সঙ্গত’বলে মনে করছেন না ছোটপর্দার অভিনেতা অ্যালেন শুভ্র।
পরিচালকের অভিযোগের ভিত্তিতে গত বুধবার ডাকা সালিশী সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয় টেলিভিশন নাটকের তিন সংগঠন-‘ডিরেক্টরস গিল্ড’,‘অভিনয়শিল্পী সংঘ’ ও ‘টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ’।

আগামী ১০ মে থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে ও পরবর্তী তিন মাস সংগঠনগুলো তার সঙ্গে কোনো কাজ করবে না বলে জানান ডিরেক্টরস গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক এস এ হক অলিক।

তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় অ্যালেন শুভ্র গ্লিটজকে বলেন, “সিদ্ধান্তটি ন্যায়সঙ্গত হয়নি।.. আমি আপিল করতে চাই। জানি না, মেনে নেবে কিনা। কিন্তু আমাকে কাজ তো করতে হবে। আমি তো অভিনয় ছাড়া আর কিছু করি না।”

ঘটনার সূত্রপাত ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে। বরিশালে নিয়াজ মাহবুবের পরিচালনায় ‘গুরাগুরা’ শিরোনামে একটি নাটকের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছিলেন অ্যালেন শুভ্র। কিন্তু তিনি শ্যুটিং শেষ না করেই ঢাকায় চলে আসেন বলে অভিযোগ করেন পরিচালক।

নিয়াজ মাহবুব বলেন, “সেদিন সকালে মোটামুটি ১১টা পর্যন্ত শ্যুটিং করলেই কাজটা শেষ হতো। কিন্তু উনি সাড়ে আটটার লঞ্চে ঢাকায় চলে আসেন। ফলে সব শিল্পীদের ঢাকায় এনে অতিরিক্ত টাকা খরচ করে আবারও শ্যুটিং করা হয়। ফলে উনি পারিশ্রমিক চাইলে তাকে বলি, পেমেন্ট দিতে আপত্তি নেই। কিন্তু একদিনের যে অতিরিক্ত টাকা খরচ হলো সেটা কে দেবে? প্রডিউসার দিলে পাঠিয়ে দেব।”

অ্যালেন শুভ্র বলেন, “বরিশালের মতো একটা জায়গায় গিয়ে উনি যদি বলেন, আরেকটা দিন বেশি থাকেন। আমি এটা কীভাবে করব? পরদিন আবার ঢাকায় শ্যুটিং ছিল। এটা বলার পরও মানতে চায় না। আমি বলেছি, শ্যুটিং করা লাগলেও ঢাকায় এসে করে দেব।…পরে যখন পারিশ্রমিক চাই তখন আমার সঙ্গে বাজে আচরণ করেন।”

শ্যুটিংয়ের শেষ হওয়ার একবছর পেরিয়ে গেলেও পারিশ্রামিক পাননি বলে জানান তিনি।

নিয়াজ মাহবুব বলছেন, সেই ঘটনার জেরেই ২০ জানুয়ারি রাতে এ অভিনেতা তাকে শারীরিকভাবে আঘাত করেন।

তিনি বলেন, “রাত সাড়ে ১২টার দিকে ও আমাকে ‘মাতাল অবস্থায়’ ইট দিয়ে আঘাত করে। ওই রাতেই আমি সংগঠনগুলোতে লিখিতভাবে অভিযোগ জানাই।”

শারীরিকভাবে আঘাতের অভিযোগটি স্বীকার করেন অ্যালেন শুভ্র। পাশাপাশি তিনিও উল্টা অভিযোগ তুললেন পরিচালকের বিরুদ্ধে, “সেদিন রাতে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করেছেন পরিচালক। তাকেও মারধর করা হয়েছে। নিয়াজ মাহবুবও ‘মাতাল’ ছিলেন”

আসলেই কী ঘটেছিল সেদিন?

প্রত্যক্ষদর্শী নির্মাতা সাইদুর রহমান রাসেল গ্লিটজকে বলেন, “অ্যালেন শুভ্রই ইট ছুঁড়ে মেরেছেন। তখন স্বাভাবিকভাবে একজন আরেকজনের দিকে তেড়ে গেছে। ওরা দু’জন দু’জনের বন্ধু। ওরা দু’জনই আমার বন্ধু। আসলে আমি চাই না ওদের মধ্যে এমনটা ঘটুক। আমি চাই, দু’জনের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে মিটমাট হয়ে যাক।”



ফেইসবুকে আমরা