চট্টগ্রাম, , সোমবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২১

বজ্রপাতে সারাদেশে ১৬ জনের মৃত্যু

প্রিয়সংবাদ ডেস্ক  ২০১৮-০৪-২৯ ১৪:১১:১৭   বিভাগ:

 

সকাল থেকে শুরু হওয়া কালবৈশাখী ঝড়ের সঙ্গে বজ্রপাতে সারাদেশে ১৬ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এসময় আহত হয়েছেন অর্ধশত ব্যক্তি।

সিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর, কাজিপুর ও কামারখন্দ উপজেলায় রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বজ্রপাতে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।

নিহতরা হলেন, শাহজাদপুর পৌর এলাকার ছয়আনিপাড়া মহল্লার ফারুক হাসানের ছেলে নাবিল হোসেন (১৭), রাশেদুল হাসানের ছেলে পলিং হোসেন (১৬), কাজীপুর উপজেলার ডিগ্রি তেকানী গ্রামের মৃত পারেশ মণ্ডলের ছেলে শামছুল মণ্ডল (৫৫) ও শামছুল মণ্ডলের ছেলে আরমান (১৪) এবং কামারখন্দের পেস্তক কুড়াগ্রামের মৃত আহের মণ্ডলের ছেলে কাদের হোসেন (৩৭)।

কাজিপুরের তেকানী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হারুনার রশিদ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রোববার সকালে ডিগ্রি তেকানী চরে ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে বাদাম তুলছিলেন শামছুল। এ সময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত হলে দুজনেই ঝলসে যান। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে কাজিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে উভয়েই মারা যান।

অপরদিকে দুপুরের দিকে শাহজাদপুর উপজেলা ভূমি অফিসের সামনে বজ্রপাতে নাবিল ও পলিং নামের দুই কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। নাবিল হোসেন ও পলিং হোসেন পৌর এলাকার ছয় আনিপাড়া মহল্লার বাসিন্দা ও শাহজাদপুর ডিগ্রি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র।

এছাড়া সকাল সাড়ে ১০টার দিকে কামারখন্দ উপজেলার পেস্তক কুড়া গ্রামের একটি ধানখেতে বজ্রপাতে কাদের হোসেন (৩৭) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। তিনি ওই গ্রামের মৃত আহের মণ্ডলের ছেলে।

মাগুরা: মাগুরা সদর অক্কুর পাড়া ও রায়গ্রাম এবং শালিখা উপজেলার বুনাগাতী গ্রামে বজ্রপাতে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এরা হলেন অক্কুর পাড়ার ভ্যানচালক শামীম, ব্লুগ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে আলম ও জয়পুরহাটের মনপুরা এলাকার আলম মিয়ার ছেলে মেহেদী।

মাগুরা সদর থানার এসআই আশ্রাফ হোসেন জানান, ঝড়-বৃষ্টির সময় ভ্যানচালক শামীম মাগুরা থেকে শ্রীপুরের দিকে যাচ্ছিলেন। আর মাগুরা থেকে বাড়ি ফেরার পথে রায়গ্রামে বজ্রপাতে শিকার হন আলম।

অন্যদিকে শালিখার বুনাগাতী এলাকায় মোবাইল ফোন টাওয়ারে কাজ করার সময় বজ্রপাতের শিকার হন মেহেদী। তাকে হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন বলে জানান মাগুরা হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক পরীক্ষিত পাল।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া: রোববার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার মোগড়া ইউনিয়নের দরুইন গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতের নাম আব্দুর রহিম (৫০)। রহিমের বাড়ি মৌলভীবাজার জেলায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আখাউড়া থানার ওসি মো. মোশারফ হোসেন তরফদার জানান, রোববার সকালে দরুইন গ্রামে ধান কাটাছিল রহিমসহ কয়েকজন কৃষক। এসময় বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত শুরু হলে গুরুতর আহত হন রহিম। পরে কৃষকরা তাকে উদ্ধার করে আখাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে জানান।

নোয়াখালী: নোয়াখালী পৌরসভার লক্ষ্মীনারায়ণপুর গ্রামে রবিবার দুপুরে বজ্রপাতে ইকবাল হাসনাত পিয়াল নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। পিয়াল নোয়াখালী জিলাস্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র। সে ওই গ্রামের সোহেল রানা জুগুর বড় ছেলে।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, পিয়াল ও তার কয়েকজন সহপাঠী মিলে তাদের বাড়ির পাশে মাঠে ক্রিকেট খেলছিল। এ সময় ঝড়-বৃষ্টি শুরু হলে পিয়ালসহ তার সহপাঠীরা দৌড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যায়। একপর্যায়ে পিয়াল মাঠে ফেলে আসা তার জুতা আনতে গেলে বজ্রপাতে আহত হয়। পরে তাকে হাসপাতালে নেয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

রাঙ্গামাটি: রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় বজ্রপাতে মনছুরা বেগম (৩৫) নামের এক মহিলার মৃত্যু হয়েছে। নিহত মনছুরা বেগম বাঘাইছড়ি উপজেলার মুসলিম ব্লক এলাকার বাসিন্দা বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ঘটনার নিশ্চিত করে বাঘাইছড়ি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমির হোসেন জানিয়েছেন, রোববার দুপুর একটার দিকে রাঙ্গামাটির উপজেলার মুসলিম ব্লক এলাকার বাসিন্দা মনছুরা বেগম বজ্রপাতে নিহত হয়েছে। নিহতের লাশ পরিবারের কাছে রয়েছে। লাশ দাফনের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান ওসি।

সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামে বজ্রপাতে লিটন মিয়া(৩০) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। কৃষক লিটন সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের সৈয়দপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান মিয়ার ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, রোববার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে কৃষক লিটন বাড়ির পাশে ধানক্ষেত ধান দেখতে যান। এসময় হঠাৎ বজ্রপাতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। সঙ্গে সঙ্গে তাকে সুনামগঞ্জ ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক লিটনকে মৃত ঘোষণা করেন। সুনামগঞ্জ ২৫০ শয্যা সদর হাসপাতালে আবাসিক চিকিৎসক ডা. রফিকুল ইসলাম জানান, সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানায় খবর দেওয়া হয়েছে।

নওগাঁ: নওগাঁর সাপাহারে বজ্রপাতে সোনাভান (২২) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। দুপুরে উপজেলার রামাশ্রম গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। এছাড়াও বজ্রপাতে পোরশা উপজেলায় মুক্তার হোসেন (১৪) নামে এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে।

গাজীপুর: গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার মাটিকাটা এলাকায় বজ্রপাতে জাফরুল ইসলাম (২০) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন আরো পাঁচজন। তারা হলেন-শৌরভ, মনি সামান্ত, লতা, আলেয়া ও তাপসি।



ফেইসবুকে আমরা